সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ, বাড়ছে নগরায়ন। রাজধানীর বুকে এক খণ্ড নিষ্কণ্টক জমি ক্রয় করা সকলের লালিত স্বপ্ন। আর আপনার এই স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষে জন্মভুমি ডেভেলপার এন্ড প্রপার্টিজ লিমিটেড গড়ে তুলছে একটি পরিকল্পিত ও পরিবেশ বান্ধব আবাসিক প্রকল্প, “জন্মভুমি সিটি”। রাজধানীর ব্যস্ততম পরিসর ও দেশের অর্থনীতির প্রান কেন্দ্র মতিঝিল থেকে মাত্র ১৬ মিনিট দূরত্বে ঢাকা মাওয়া ৪০০ ফুট মহাসড়ক সংলগ্ন আগামীর সবচেয়ে পরিকল্পিত শহর ‘জন্মভূমি সিটি’ অবস্থিত। আগামী প্রজন্মের জন্য নিশ্চিত ভবিষ্যৎ গড়ে তুলতে সবুজের মাঝে নিরাপদ এই আবাসন প্রকল্পটি হোক আপনার পরিবার-পরিজন ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের নিশ্চিত ঠিকানা।

“জন্মভুমি সিটি” আবাসন প্রকল্প, মতিঝিল থেকে মাত্র ১৬ মিনিটের দূরত্বে ঢাকা মাওয়া এক্সপ্রেস হাইওয়ে সংলগ্ন আমিন মোহাম্মদ সিটির ঠিক বিপরিত পাশে অবস্থিত। বন্যা মুক্ত উচু জমি যা পরিপুর্নভাবে আধুনিক এবং পরিকল্পিত ভাবে দক্ষ -অভিজ্ঞ স্থপতি, নগরবিদ এবং পরিবেশবিদদের দারা ডিজাইনকৃত। “জন্মভূমি সিটি” আবাসন প্রকল্প এ থাকবে স্কুল, কলেজ, হাসপাতাল, মসজিদ, খেলার মাঠ, কমিউনিটি সেন্টার, ১০০, ৫০, ৬০, ৩০ ও ২৫ ফিট প্রশস্ত রাস্তা, নয়নাভিরাম লেকসহ বসবাসের সকল ধরনের নাগরিক সুযোগ সুবিধা। সাথে আছে নিজস্ব ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট, ইলেক্ট্রিক সাবস্টেশনের ব্যবস্থা, লেক সংলগ্ন হাটার পথ (ওয়াক-ওয়ে) এবং বর্জ ব্যবস্থাপনা প্রকল্পও। নিরবিচ্ছিন্ন নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা, ফায়ার সার্ভিস, সহ সর্বাধুনিক নিরাপত্তা বেষ্টনি। ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে সুদ্মুক্ত, সহজ শর্ত এবং সর্বোচ্চ ১২০ টি কিস্তিতে পরিশোধের অপুর্ব সুযোগ যাতে করে প্রতিটি মানুষ তার মৌলিক অধিকার বাসস্থান নিশ্চিত করতে পারে । থাকবে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে প্লট হস্তান্তরের নিশ্চয়তা।

সময়ের সাথে এগিয়ে চলাই বাস্তবতা। আর এই বাস্তবতাকে বাস্তবায়ন করাই আমাদের চ্যালেঞ্জ। সেইলক্ষে মানুষের আশা- আকাঙ্খাকে বুকে ধারন করে, খুব দ্রুত একটি সবুজ, সুন্দর, ছায়াঘেরা, সুনিবির আবাসন গড়াই আমাদের অঙ্গীকার।

জন্মভুমি সিটি এর বৈশিষ্ট্য সমুহ

  • জন্মভুমি সিটি, জনভুমি ডেভেলপার এন্ড প্রপার্টিজ লিঃ এর একটি আবাসিক প্রকল্প, এই প্রকল্পটি প্রাকৃতিক ভাবে গড়ে উঠা সম্পূর্ণ বন্যা মুক্ত উঁচু জমি যাহার উপর গড়ে উঠবে একটি আধুনিক ও প্রকল্পিত শহর।

  • দক্ষ, অভিজ্ঞ স্থপতি, নগর পরিকল্পনাবিদ ও পরিবেশ বাদীদের পরামর্শের ভিত্তিতে এবং আধুনিক বিশ্বের উন্নত শহরের আদলে এই প্রকল্পটির পরিকল্পনা ও ডিজাইন করা হয়েছে।

  • প্রকল্পের বিভিন্ন স্থানে প্রায় ৩.৫ কিঃ মিঃ দীর্ঘ ও মনোরম প্রাকৃতিক লেকের উভয় পার্শে সবুজ বেষ্টনীসহ পায়ে হাটার পথ (ওয়াক-ওয়ে) থাকায় স্বাস্থ্যকর আবহাওয়া সবসময় বিরাজমান থাকবে, যার ফলে গড়ে উঠবে প্রাতঃ ও বৈকালীন ভ্রমনের জন্য চমৎকার পরিবেশ।

  • জমির মূল্য ক্রয় ক্ষমতার মধ্যেই সীমাবদ্ধ।

  • সুদ মুক্ত, সহজ শর্ত ও দীর্ঘ মেয়াদী কিস্তির অপূর্ব সুযোগ, যা সর্বচ্চো ১২০টি কিস্তিতে পরিশোধ যোগ্য।

  • নির্দিষ্ট সময়ে প্লট হস্তান্তরের নিশ্চয়তা।

  • প্রকল্পের ভিতর ১০০, ৮০, ৫০, ৪০, ৩০ ও ২৫ ফিট প্রশস্থ রাস্তা থাকবে, ফলে যোগাযোগ ব্যবস্থাকে অত্যন্ত সহজ করে তুলবে।

  • সর্বাধুনিক নিজস্ব নিরবিচ্ছিন্ন নিরাপত্তা ব্যবস্থা (ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা), তথ্য ও নিরাপত্তা কেন্দ্র, ফায়র সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স-এর মাধ্যমে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।

  • নিরবিচ্ছিন্ন সার্বক্ষণিক বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করতে সাব-স্টেশন নির্মাণের জন্য নির্ধারিত স্থান।

  • কেন্দ্রীয় ভাবে বর্জ্য নিষ্কাশন প্লান্ট স্থাপন করা হবে।

  • নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় সর্বাধুনিক প্রযুক্তিতে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা।

বোর্ড  অফ  ডিরেক্টর